1. kamruzzaman78@yahoo.com : kamruzzaman Khan : kamruzzaman Khan
  2. ssexpressit@gmail.com : savarsangbad :
বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪, ১০:০১ অপরাহ্ন

আশুলিয়ায় জ্বালানি তেলসহ নিত্যপণ্যের দাম বৃদ্ধির প্রতিবাদে মানববন্ধন

  • আপডেট সময় : মঙ্গলবার, ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০২২

আশুলিয়া প্রতিনিধি: আশুলিয়ায় জ্বালানি তেলসহ নিত্যপণ্যের দাম বৃদ্ধির প্রতিবাদে ১০ দফা দাবি জানিয়ে মানববন্ধন করেছে বিপ্লবী গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশন নামের একটি শ্রমিক সংগঠন। সোমবার দুপুরে সংগঠনটির আশুলিয়া আঞ্চলিক কমিটির উদ্যোগে জামগড়া ফ্যান্টাসি কিংডমের সামনে এ মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়েছে।

আয়োজিত মানববন্ধন থেকে জ্বালানী তেলের দামসহ সকল নিত্যপণ্যের মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদ ও তিব্র ক্ষোভ জানিয়ে শ্রমিকের পক্ষে ১০ দফা দাবী তুলে ধরেন বিপ্লবী গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সভাপতি অরবিন্দু বেপারী (বিন্দু)।দবীগুলো হচ্ছে – শ্রম আইনের ১৪০(ক) ধারা অনুযায়ী গার্মেন্টস সেক্টরে এমনভাবে ঘোষণা করা হোক যা কোনক্রমেই ২০ হাজার টাকার কম হতে পারবে না। প্রত্যেক কারখানায় কলনী নির্মাণ করে সকল শ্রমিকের বাসস্থান নিশ্চিৎ করা। শ্রম আইন সংশোধন করে শ্রমবান্ধব শ্রম আইন প্রনয়ন করতে হবে। সকল কারখানা ও প্রতিষ্ঠানের শ্রমিকদের নিরাপত্তা ও শ্রমিকদের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিৎ করা। তাজরিন ফ্যাশন, রানা প্লাজা ও সেজান জুসসহ সকল কাঠামোগত হত্যাকান্ডের জন্য দায়ী মালিক ও সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের উপযুক্ত শাস্তি নিশ্চৎ করা। কারখানা শ্রমিকদের জন্য কোম্পানির খরচে যাতায়াত ব্যাবস্থা চালু করা। সকল শিল্প প্রতিষ্ঠানে একাধিক ট্রেড ইউনিয়ন গঠনের অধিকার নিশ্চিৎ করা। মাতৃত্বকালীন ছুটি ৬ মাস করা। শ্রমিক স্বার্থবিরোধী নিপীড়নমূলক সকল কালাকানুন বাতিল করা। শ্রমিকদের জন্য কমদামে রেশনিং ব্যাবস্থা চালু করা। প্রতিটি শিল্প এলাকায় ১০০ শয্যা বিশিষ্ট পৃথক শ্রমজীবী হাসপাতাল প্রতিষ্ঠা করা। জাতীয় ন্যূনতম মজুরী ২০ হাজার টাকা ঘোষণা করার দাবীতে। এসময় অরবিন্দু বেপারী বিন্দু বলেন, সরকার হঠকারী সিদ্ধান্ত নিয়ে চোরাগুপ্তা কায়দায় জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধি করেছে। জ্বালানির তেলসহ সকল নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যাদির মূল্য বৃদ্ধির গণবিরোধী সিদ্ধান্ত নেওয়ার কারনে গার্মেন্টস শিল্পের শ্রমিকসহ সকল শ্রমিক শ্রেনীর নিম্ন আয়ের মানুষের উপর চরম বিপর্যয় নেমে এসেছে। সরকার বরাবর বলে থাকে আন্তর্জাতিক বাজারে দাম বাড়লে বাংলাদেশে ও সমন্বয় করে মূল্য বৃদ্ধি করতে হয়। তাহলে আন্তর্জাতিক বাজারে যখন জ্বালানি তেলের মূল্য কমে যায় তখন কেন সরকার দাম কমানোর সিদ্ধান্ত নেয় না। আসলে এই সরকার পুঁজিবাদ, বাজার সিন্ডিকেটের সরকার বলে আখ্যায়িত করেন। তিনি আরও বলেন, গার্মেন্টস শ্রমিকের মজুরী বেড়েছে ২০১৮ সালে নিম্নতম মজুরী ৮ টাকা তখন বাজারের অবস্থা ছিল মোটামুটি স্বাভাবিক এখন ২০২২ সালে বাজারের অবস্থা খুব ভয়াবহ সকল নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যের দাম আকাশ ছোঁয়া যাহা গার্মেন্টস শিল্পের শ্রমিকসহ কম রোজগারের মানুষের ক্রয় ক্ষমতার বাইরে।এই মুহূর্তে দরকার সকল শ্রমিকদের ন্যূনতম মজুরি ২০ হাজার টাকা ঘোষণা করা দরকার। মানব বন্ধন থেকে বক্তারা বলেন, জ্বালানী তেলের মূল্য বৃদ্ধি হওয়ার কারনে গনপরিবহনে ভাড়া নৈরাজ্য সৃষ্টি হয়েছে। প্রত্যেক শিল্প এলাকায় শ্রমিকদের যাতায়াতে চরম বির্পযয় নেমে এসেছে। একই সাথে সরকারের উচিৎ জ্বালানী তেলের দামসহ সকল নিত্য প্রয়োজনৗয় দ্রব্যমূল্যের দাম ক্রয় ক্ষমতার নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসা। তা নাহলে গার্মেন্টস শিল্পের শ্রমিকেরা যে কোন মুহুর্তে আন্দোলন সংগ্রামে সামিল হতে পারে। গার্মেন্টস মালিকদের মজুরী বৃদ্ধি করার ব্যাপারে পদক্ষেপ নেওয়ার ভূমিকা পালন করার আহবান জানান, বিপ্লবী গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশন। আয়োজিত মানববন্ধনে সংহতি বক্তব্য রাখেন, ছাত্র অধিকার পরিষদ আশুলিয়া আঞ্চলিক সভাপতি ফরহাদ হোসেন, বাংলাদেশ গার্মেন্টস শ্রমিক সংহতির নেতা শ্রমিক বাবুল হোসেন, নেতা, খোরশেদ আলম, তানিয়া আক্তার লিমা, হাফিজুর রহনান, আল-আমিন প্রমূখ।

সংবাদটি শেয়ার করুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও সংবাদ :