1. kamruzzaman78@yahoo.com : kamruzzaman Khan : kamruzzaman Khan
  2. ssexpressit@gmail.com : savarsangbad :
বুধবার, ২৪ জুলাই ২০২৪, ০২:১৫ পূর্বাহ্ন

আশুলিয়ায় আটকে রেখে ৩ লাখ টাকা মুক্তিপণ আদায়, গ্রেপ্তার ২ 

  • আপডেট সময় : বৃহস্পতিবার, ২২ জুন, ২০২৩

আশুলিয়া প্রতিনিধি: আশুলিয়ায় একটি বেসরকারি ব্যাংকের এক কর্মচারীকে কৌশলে অপহরণের পর আটকে রেখে নির্যাতন করে ৩ লাখ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার ঘটনায় দুইজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। ২২ জুন বৃহস্পতিবার দুপুর গ্রেপ্তার দুই আসামিকে আদালতে পাঠিয়েছে আশুলিয়া থানা পুলিশ। এর আগে, ২১ জুন বুধবার রাতে ধামরাই থেকে আসামি আতাউর রহমান আতা (২৮) ও মো. শাহিনকে (৩৮) গ্রেপ্তার করা হয়। গত ১৪ জুন ঘটনার পরদিন ভুক্তভোগী আশুলিয়া থানায় পাঁচজনের নাম উল্লেখ করে একটি মামলা করেন। ভুক্তভোগী মো. মশিউর রহমান পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জ থানার মধ্যরামপুর এলাকার বাসিন্দা। তিনি ইসলামী ব্যাংকের প্রধান কার্যালয়ের অফিস সহায়ক হিসেবে কর্মরত আছেন। মামলার এজাহারে বলা হয়, গত ১৩ জুন ভুক্তভোগী মশিউর রহমান জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ুয়া নিজের ছোট ভাইয়ের সঙ্গে দেখা করতে ঢাকা থেকে বাসে ওঠেন। তবে বাসে ঘুমিয়ে পড়ায় নির্ধারিত গন্তব্যে তিনি নামতে পারেননি। বিকেল ৩টার ঘুম ভেঙে তিনি দেখতে পান বাসটি আশুলিয়ার পলাশবাড়িতে দাঁড়িয়ে আছে। বাস থেকে নামতেই তিনজন আসামি শাহিন, আতা ও বিপ্লব এসে ভুক্তভোগীকে ঘিরে ধরে। পরে কৌশলে ভুক্তভোগীকে পাশেই ওসমান গণি নামে এক ব্যক্তির আটতলা বাড়ির দ্বিতীয় তলায় আসামি সাইদুর হোসেনের বাসায় নিয়ে যায়। পরে ভুক্তভোগীকে আটকে মারধর করে জখম করে সন্ত্রাসীরা। ভুক্তভোগীর কাছে থাকা ১২ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেওয়ার পর মুক্তি পেতে আরও ১ লাখ টাকা দাবি করে তারা। হত্যার হুমকিতে নিরুপায় হয়ে আসামিদের বিকাশ নম্বরে ৪০ হাজার টাকা পাঠায় ভুক্তভোগীর পরিবার। এমনকি ভুক্তভোগীর নিজের বিকাশ, সেলফিন, নগদ নম্বরের মাধ্যমে আরও ১ লাখ ৩২ হাজার টাকা হাতিয়ে নেয় অপহরণকারীরা। এছাড়াও ইসলামী ব্যাংকের বুথ থেকে ৫০ হাজার এবং ব্যাংক থেকে বিকাশের মাধ্যমে আরও ৬০ হাজারসহ মোট ২ লাখ ৮২ হাজার টাকা মুক্তিপণ আদায় করে অপহরণকারী চক্রটি। প্রায় সাড়ে তিন ঘণ্টা ধরে জিম্মি অবস্থায় আটকে রাখার পর দুই আসামির নজরদারির মধ্যে ভুক্তভোগীকে ছেড়ে দেওয়া হয়। জিম্মি দশা থেকে মুক্তি পাওয়ার পর ভুক্তভোগী পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করে আশুলিয়া থানায় মামলা করেন। আশুলিয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) এমদাদুল হক বলেন, বেসরকারি একটি ব্যাংকের এক কর্মচারীকে জিম্মি করে টাকা হাতিয়ে নেওয়ার মামলায় আতা ও শাহিনকে বুধবার রাতে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। মামলার প্রধান আসামি সাইদুরকে আগেই গ্রেপ্তার করা হয়েছে। মামলার বাকি আসামিদেরও গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও সংবাদ :